ব্রাহ্মাণ্ডর প্রতি শূন্যবয়সি লেখাবাজ

বলছি না কেউ কবিতা পড়ুক। আমি চাই, কেউ কেউ কবিকে পড়ুক!
কল্পনা করুন মৃত্যুর মিনিট দশেক আগে রেল লাইন ধরে জীবনানন্দ দাস হেটে যাওয়ার সময়!
জীবন বুঝতে চাও?
কতটা নিঃশ্বঙ্গ,কতটা একা;
কতটা ক্লান্ত,কতটা জীর্ণ!

কিছু কিছু মানুষ কেবল তাদের মৃত অভ্যস্থ-প্রেরণাগুলি,
খুঁজে ফিরে — অদৃশ্য এক ব্রহ্মাণ্ডের দিকে।
আমি কেবল স্বতন্ত্র !
মৃত্যুর স্বাদ খুঁজি রেহালে পরে থাকা সুরা হাশরের শেষ তিন আয়াতে।

মৃত্যু কি সহজ..!
কি নিঃশব্দে আসে,ব্রক্ষাণ্ডের অতল গ্রহ থেকে
অথচ মানবজাতি চিরকালই
জীবন নিয়ে গর্ব করে যায়।।

কবি বলেছেন-" জামা----
কখনো লাল,
কখনো নীল; শিহরণ জাগানো চুল
মায়াবী ঐ চোখ।
তোমার ঐ কাজলকালো মায়াভরা জালে আমার সহস্র মৃত্যু হোক"।

মন্তব্য

এই ব্লগটি থেকে জনপ্রিয় পোস্টগুলি

তৎপর আমি

বলভদ্র

গরু/গোরু/হাম্বা